কালিহাতীতে অবৈধভাবে নদী থেকে মাটি কেটে বিক্রি, নিলাম বলে ধোঁকা

কালিহাতী প্রতিনিধি : টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার এলংজানী নদী থেকে ভেকু ও বাংলা ড্রেজার দিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন ও বিক্রি করছে বালুখেকো চক্র।

আর তারা এই বালু নিলামের বালু বলে ধোঁকা দিচ্ছে তারা।

এতে হুমকির মুখে রয়েছে কোটি টাকা ব্যয়ে এলেঙ্গা বাজার ব্রীজ, নদী তীরবর্তী বসতবাড়ী ও বাঁশি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।

জানা যায়, উপজেলার এলেঙ্গায় বাঁশি গ্রামের প্রভাবশালী দুটি গ্রুপ অবাধে বালু উত্তোলন করে বিক্রি করে আসছে অভিযোগ স্থানীয়দের।

জানা যায়, দু গ্রুপ ৩০-৪০ জন করে দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে বালু ব্যবসা পরিচালনা করে আসছে।

সরকারী ভাবে নদীর তলদেশ থেকে বালু উত্তোলন করা নিষিদ্ধ থাকলেও তার কোন তোয়াক্কা করছে বালুখেকোরা।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয়রা জানান, বন্যায় ৩-৪ বার বসতভিটা সরিয়ে এখন নামমাত্র জায়গায় কোনভাবে ঘর বানিয়ে করে বসবাস করছি।

তার মধ্যে এভাবে নদী থেকে বালু উত্তোলন চলছে শেষ সম্বলটুকু আগামী বন্যায় হারাতে হবে।

আমরা কার কাছে জানাবো? প্রতিবাদ করলে দাঙ্গা হাঙ্গামা ও মিথ্যা মামলা দিয়ে জেল হাজতের ভয় দেখায়।

বালু মহলের একাংশের মালিক মাজেদুল ও সফিকুল বলেন, আমরা নিলামের বালু উত্তোলন করছি; স্থানীয় প্রশাসনকে ম্যানেজ করেই দীর্ঘদিন যাবৎ ব্যবসা করছি।

অপর অংশের ঘাট মালিক জলিল জানান, আমি এ বিষয়ে জড়িত ছিলাম আগে এখন জড়িত নাই বলে অস্বীকার করেন।

কালিহাতী উপজেলা ভূমি কর্মকর্তা কামরুল হাসান বলেন, বিষয়টি আমার জানা ছিলনা। মাত্র শুনলাম, অতি দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এ ব্যাপারে কালিহাতী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুমানা তানজিন অন্তরা বলেন, বেকু ও ড্রেজার বসিয়ে মাটি উত্তোলনের বিষয়টি আমি জানি না; জেনে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সম্পাদনা – অলক কুমার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *