গোপালপুরে গো-খাদ্য খড় মাপার অভিনব কায়দা আবিস্কার

গোপালপুর প্রতিনিধি : টাঙ্গাইলের গোপালপুর গো-খাদ্য হিসেবে ব্যবহৃত খড় মাপার অভিনব পদ্ধতি আবিস্কার করেছেন এক খড় ব্যবসায়ী।

উনার আবিস্কৃত পদ্ধতি নিজের চোখে না দেখলে বিশ্বাস করা যাবে না।

আর এই অভিনব পদ্ধতিটি আবিস্কার করেছেন খড় ব্যবসায়ী মো. নাজিম উদ্দিন।

তার আবিস্কৃত খড় মাপার পদ্ধতি –

যিনি খড় কিনবেন প্রথমে তাকে মিটারে তুলে ওজন করা হয়।

তারপর ওই ব্যক্তি যতটুকু খড় কিনবেন ততটুকু তার মাথায় তুলে দিয়ে আবার মিটারে ওজন করা হয়।

এতে ক্রেতার চাহিদা মতো খড়ের ওজন বেড়িয়ে আসে।

এবছর গো-খাদ্যের চাহিদা বেশি থাকায়, চাহিদা মেটাতে বিভিন্ন পেশার মানুষ গো খাদ্য বা খড়ের ব্যবসা শুরু করেছেন।

তারা বিভিন্ন অঞ্চল থেকে খড় কিনে এনে নিজ নিজ এলাকায় বিক্রি শুরু করেছেন।

টাঙ্গাইলের গোপালপুরে ধোপাকান্দি ইউনিয়নের কামদেব বাড়ি ও শাজাহানপুরে এভাবেই গড়ে উঠেছে অস্থায়ী গো-খাদ্য বিক্রয় কেন্দ্র।

খড় ব্যবসায়ী মো. নাজিম উদ্দিন জানান, আমি চার মাস ধরে খড়ের ব্যবসা করতেছি।

সিলেট ব্রাহ্মণবাড়িয়া ভৈরব থেকে এই পর্যন্ত ২০ ট্রাক খড় এনে বিক্রি করেছি।

আশেপাশের থানা ও বিভিন্ন জায়গা থেকে অটো ভ্যান চালক ও ক্রেতাগণ এসে গো-খাদ্য খড় ক্রয় করে থাকে।

অটো ভ্যান চালক মো. মসজিদ জানান, আমরা এখান থেকে খড় কিনে নিয়ে বিভিন্ন হাটে বিক্রি করে থাকি।

ব্যাটারি চালিত অটোরিক্সা বেশি হওয়াতে আমাদের আয় অনেক কমে গেছে, তাই আমরা ভিন্ন বাসায় জীবিকা অর্জন করছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *