টাঙ্গাইলে স্কুল শিক্ষক হত্যার বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

প্রতিনিধি, টাঙ্গাইল : টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার কদিম খশিল্লা গ্রামে মসজিদ নির্মাণকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় মিজানুর রহমান বাবুল (৪২) নিহত হওয়ার ঘটনার আসামীদের বিচার দাবিতে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী।

সোমবার (২৬ এপ্রিল) সকালে কদিম খশিল্লা গ্রামে মসজিদের সামনে রাস্তায় এলাকাবাসী এ মানববন্ধনের আয়োজন করে।

মানববন্ধনে এলাকাবাসী জানান, নিহত মিজান একজন স্কুল শিক্ষক একজন ভালো মানুষ ছিলেন। তারা হত্যকারীদের দ্রুত গ্রেপ্তার দাবি জানান।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, ইমতিয়াজ, জিয়াউর রহমান, আলম, নিহত বাবুলের ছোট ভাই আনোয়ার হোসেন, হাজী সরয়ারদী, রহিজ উদ্দিন, হাজী শওকত আলী প্রমুখ।

উল্লেখ্য, মিজানুর রহমান বাবুলের দাদি উপজেলার নাগবাড়ি ইউনিয়নের কদিম খশিল্লা গ্রামে মসজিদ নির্মাণের জন্য জমি দান করেন।

ওই জমিতে মাটি ভরাট করেন, জমির পাশের বাড়ির মালিক কোরবান আলীদের সাথে নিয়ে মাপ জোক করে মসজিদ নির্মান কাজ শুরু করেন।

মসজিদ ঘর নির্মাণ শেষ হলে কোরবান আলী মসজিদের ভিতর জায়গা পাবে বলে দাবি করে।

কথা কাটাকাটির এপর্যায়ে ফালু শেখের ছেলে কোরবান, নুরু, মোংলা, আলম; কোরবান আলীর ছেলে ফজলু ইট পাটকেল দিয়ে ঢিল ছুড়তে থাকে।

এক পর্যায়ে মিজানুর রহমান বাবুলের মাথায় সাবল দিয়ে আঘাত করে। লাবু ও জাহিদ এগিয়ে এলে তাদেরকেও পিটিয়ে আহত করে।

আহত অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপালে পাঠানো হয়।

অবস্থার অবনতি হলে সেখান থেকে বাবুলকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠালে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

এব্যাপারে নিহতের চাচা জিয়াউর রহমান বাদি হয়ে কালিহাতী থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। সম্পাদনা – অলক কুমার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *