টাঙ্গাইল-০৭ (মির্জাপুর) আসনের এমপি একাব্বর হোসেনের ইন্তেকাল

মির্জাপুর প্রতিনিধি : টাঙ্গাইল-৭ মির্জাপুর আসনের সাংসদ সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা একাব্বর হোসেন ইন্তেকাল করেছেন।

মঙ্গলবার দুপুর দুইটার দিকে ঢাকা সিএমএইচ হাসপাতালে তিনি ইন্তেকাল করেছেন।

মির্জাপুর উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক ও সাংসদ একাব্বর হোসেনে সাবেক এপিএস শামীম আল মামুন খবরটি নিশ্চিত করেছেন।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সংসদ ভবনে তার প্রথম নামাজের জানাজা অনুষ্ঠিত হবে।

আগামীকাল বুধবার বাদ যোহর মির্জাপুর শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়ামে তার দ্বিতীয় নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবার কথা রয়েছে।

শামীম আল মামুন জানান, কিডনী জনিত অসুস্থতার কারণে আলহাজ একাব্বর হোসেন নিয়মিত ডায়ালাইসিস করতেন।

গত ১৯ অক্টোবর মঙ্গলবার ধানমন্ডির আনোয়ার খান মর্ডান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়মিত ডায়ালাইসিস করতে গেলে সেখানে তাঁর অবস্থার অবনতি ঘটে; পরে তাকে আইসিইউতে নেয়া হয়।

২০ অক্টোবার বুধবার সিটিস্ক্যান রিপোর্টে তিনি ব্রেনস্ট্রোকে আক্রান্ত হয়েছেন বলে চিকিৎসক নিশ্চিত হন।

ব্যক্তিগত ও রাজনৈতিক বৃত্তান্ত –

মির্জাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা একাব্বর হোসেন ২০০১ সালে অষ্টম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী হিসেবে টাঙ্গাইল-৭ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

পরে ২০০৮, ২০১৪ ও ২০১৮ সালে অনুষ্ঠিত নবম, দশম ও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে একই আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

তিনি জাতীয় সংসদে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবং ভূমি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন।

একাব্বর হোসেন এমপি ১৯৫৬ সালের ১২ জুলাই মির্জাপুর উপজেলার পোষ্টকামুরী গ্রামে জন্ম গ্রহণ করেন।

তাঁর পিতার নাম আলহাজ ওয়াজউদ্দিন এবং মাতার রেজিয়া বেগম।

তিনি ১৯৭৭ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিএসএস সম্মান ও ১৯৭৮ সালে এমএসএস ডিগ্রী অর্জন করেন।

তিনি ছাত্রজীবন থেকে ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত।

১৯৭৩ সালে সরকারী তিতুমীর কলেজে পড়াকালীন সময়ে কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন।

পরে ১৯৭৬ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মহসীন হল শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এবং ১৯৭৮ সালে একই হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন।

১৯৯০ সালে তিনি মির্জাপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।

তিনি মির্জাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন।

ব্যক্তিগত জীবনে আলহাজ একাব্বর হোসেন এক ছেলে দুই মেয়ের জনক। সম্পাদনা – অলক কুমার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *