মধুপুরের আরশেদ হত্যা মামলার তদন্ত শুরু করেছে সিআইডি

নিজস্ব প্রতিবেদক : টাঙ্গাইলের মধুপুরে শশুর বাড়ীতে ডেকে নিয়ে জামাই আরশেদ আলী হত্যার ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছে টাঙ্গাইলের সিআইডি পুলিশ।

গতকাল বুধবার (১৮ নভেম্বর) টাঙ্গাইলের বিশেষ পুলিশ সুপার কুতুব উদ্দিন তার টিম নিয়ে ঘটনাস্থলে তদন্ত শুরু করেন।

টাঙ্গাইলের বিশেষ পুলিশ সুপার (সিআইডি) কুতুব উদ্দিন জানান, আরশেদ আলী হত্যা মামলাটির তদন্ত এখনোও চলমান।

কি কারণে আরশেদকে হত্যা করা হয়েছিল, তদন্ত শেষে তা জানা যাবে।

উল্লেখ্য, গত ১৮ মে টাঙ্গাইলের মধুপুর উপজেলার মির্জাবাড়ী ইউনিয়নের থলবাড়ী গ্রামে সুপারি গাছের সঙ্গে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় আরশেদ আলীর (৩২) মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

আরশেদ আলীর মা মাজেদা বেগম ও ভাই মোফাজ্জল হোসেন ও মিজানুর রহমান জানান, স্ত্রী রেহেনার অসুস্থতার কথা বলে ১৭ মে আরশেদকে শ্বশুরবাড়িতে ডেকে নিয়ে আসেন স্ত্রী রেহেনার বড় বোন হোসনে আরা ( আঙ্গুরী)।

পরের দিন ১৮ মে সকালে থলবাড়ী গ্রামে শ্বশুরবাড়ির সুপারি গাছের সঙ্গে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় আরশেদ আলীর (৩২) মরদেহ উদ্ধার করে মধুপুর থানা পুলিশ।

তাদের দাবি আরশেদকে মেরে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে।

ঘটনার পর থেকেই স্ত্রী রেহেনা পারভীন ও তার দুলাভাই আব্বাস আলী পলাতক।

তারা আরোও জানান, সিআইডি এখন নতুন করে তদন্ত শুরু করেছে।

আমরা চাই সিআইডি সঠিক তদন্ত করে প্রকৃত অপরাধীদেরদের দ্রুত খুজে বের করুক।

এসময় তারা প্রকৃত অপরাধীদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবী করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *