মাছ ধরতে গিয়ে ট্রেনে কাটা পড়ে দুই বন্ধুর মৃত্যু

কালিহাতী প্রতিনিধি : টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার ভাবলা এলাকার বুরবুরা বিলে মাছ ধরতে গিয়ে ট্রেনে কাটা পড়ে  দুই বন্ধুর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে।

এ সময় চানু মিয়া নামের অপর সাথী অল্পের জন্য রক্ষা পেলেও লাফ দিয়ে সরতে গিয়ে আহত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (২ ডিসেম্বর) দুপুরে ঘারিন্দা রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এএসআই আব্দুস সবুর নিশ্চিত করেছেন।

নিহতরা হচ্ছে, নিহত মধুপুর উপজেলার মহিষমারা গ্রামের কুদরত আলীর ছেলে বাদল (২৬) ও একই গ্রামের আশ্রয়ণ কেন্দ্রের বাসিন্দা সুরজত আলী সুরুজের ছেলে মানিক (২৫)।

বঙ্গবন্ধু সেতু রেলওয়ে স্টেশনের হেড বুকিং রেজাউল করিম জানান, বুধবার (১ ডিসেম্বর) দিবাগত রাত সাড়ে এগারটার দিকে উত্তরবঙ্গগামী কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস ট্রেনে কাটা পড়ে দুজন নিহত হয়।

বিষয়টি শোনার পরেই আমরা রেলওয়ে পুলিশকে জানিয়েছি।

ঘারিন্দা রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এএসআই আব্দুস সবুর জানান, ঘটনা শোনার পর পরই আমরা ঘটনাস্থলে যাই; আমরা পৌঁছানোর আগেই স্বজনরা লাশ দুটি নিয়ে গেছে।

নিহতদের সাথে থাকা মৎস্য শিকারী চানু মিয়া জানান, বাদল, মানিককে পিছন থেকে অনুসরণ করে রেল লাইন ধরে চারজন হাঁটছিলাম।

২০/৫০ গজ দূরে এগিয়েই বিলে নেমে মাছ ধরা শুরু করতেন। এমন সময় পিছন থেকে ট্রেন আসে।

অন্যরা দ্রুত সরে গেলেও চোখের পলকে ট্রেন বাদলকে পিষে আর মানিককে ধাক্কা দিয়ে যায়; ঘটনাস্থলেই তাদের মৃত্যু হয়। এতে সবাই খুবই ভয় পায়।

মধুপুরের মহিষমারা ইউপি চেয়ারম্যান কাজী মোতালেব হোসেন বলেন, রাতেই দুইজনের মরদেহ নিয়ে বাড়ি নিয়ে আসেন সাথে থাকা অন্যরা।

মানিকের ৮ দিনের সন্তানসহ স্ত্রী ও মা বাবা রয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে নামাজে জানাযা শেষে স্থানীয় কবরস্থানে তাদের দাফন করা হয়েছে। সম্পাদনা – অলক কুমার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *