নাগরপুরে লকডাউন অমান্য, ১৪ ব্যবসায়ীকে জরিমানা

নাগরপুর প্রতিনিধি : করোনা সংক্রমন কমাতে সরকারি আদেশ লকডাউন অমান্য করে দোকান খোলা রেখে ব্যবসা পরিচালনা করার দায়ে ১৪ ব্যবসায়ীকে জরিমানা করা হয়েছে।

রোববার বিকেলে টাঙ্গাইলের নাগরপুর সদর বাজারে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে এই অভিযান চালিয়েছেন উপজেলা নিবাহী অফিসার সিফাত-ই- জাহান।

দ্বিতীয় দফা করোনা সংক্রমণে জনগনের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করতে খাদ্যপণ্য ও ঔষধের দোকান ছাড়া সবধরণের প্রতিষ্ঠান বন্ধের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

জেলা প্রশাসনের এই আদেশ মোতাবেক সব ধরণের দোকানপাট বন্ধে মাঠ তদারকিতে নেমেছেন নাগরপুর উপজেলা প্রশাসন ও থানা পুলিশ।

নাগরপুর উপজেলায় লকডাউনের বিধিনিষেধ ও স্বাস্থ্যবিধির উপর মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়।

এসময় লকডাউনের বিধিনিষেধ লঙ্ঘন করায় এবং স্বাস্থ্যবিধি না মানায় ১৪ জনকে “দণ্ডবিধি ১৮৬০” এর ১৮৮ ও ১৬৯ ধারায় সর্বমোট সাত হাজার টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করা হয়।

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনায় সহায়তা করেন নাগরপুর সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, নাগরপুর থানার পুলিশ সদস্যগণ এবং উপজেলা নিবার্হী অফিসের স্টাফবৃন্দ।

অভিযানে উপজেলা নিবাহী অফিসার সিফাত -ই- জাহান বলেন, সরকার বুধবার ভোর ছয়টা থেকে ২১ এপ্রিল রাত বারোটা পর্যন্ত এক সপ্তাহের লকডাউন ঘোষনা করেছে।

নাগরপুরে সঠিকভাবে যেন লকডাউন পালিত হয়; সেই লক্ষে উপজেলা প্রশাসন ও নাগরপুর থানা পুলিশের পক্ষ থেকে আমরা ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করি।

বেশির ভাগ দোকানী সরকারের আদেশ মেনে চলছে; কিছু কিছু দোকানী আদেশ অম্যান্য করে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলা রাখায় ও মাস্ক ব্যবহার না করায় তাদের কে জরিমানা করা হয়।

এসময় তিনি যেসব লোক অপ্রয়োজনে ঘর থেকে বাজারে এসেছেন তাদের প্রাথমিকভাবে সতর্ক করে দেন।

এছাড়া যারা শ্রমের তাগিদে ঘর থেকে মাস্ক ছাড়া বের হয়েছেন তাদের মাঝে মাস্ক বিতরণ করেন।

লকডাউন যথাযথ ভাবে মেনে চলতে সকলকে ঘরে থাকার আহবান জানান। সম্পাদনা – অলক কুমার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *